মাশরাফিকে পেতে মরিয়া নির্বাচকরা

উইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ফরম্যাটের তিনটি পৃথক সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ দল এখন অবস্থান করছে ক্যারিবীয় অঞ্চলে। অ্যান্টিগা টেস্টে লজ্জাজনক হারের পর টাইগাররা এখন গভীর মনোযোগে খেলছে জ্যামাইকায় চলমান সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে।উইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ফরম্যাটের তিনটি পৃথক সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ দল এখন অবস্থান করছে ক্যারিবীয় অঞ্চলে। অ্যান্টিগা টেস্টে লজ্জাজনক হারের পর টাইগাররা এখন গভীর মনোযোগে খেলছে জ্যামাইকায় চলমান সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে।তবে দলের অন্যতম সেরা ক্রিকেটারকে পেতে মরিয়া নির্বাচকরা। আর তাই মাশরাফির জন্য শেষমুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করতেও রাজি তারা।

এর আগে ওয়ানডে সিরিজের জন্য ১৪ জুলাই মাশরাফি দেশ ছাড়ার কথা থাকলেও সেটি হচ্ছে না। বাংলাদেশ দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, ‘মাশরাফি ১৪ তারিখ যেতে পারছে না তা আমরা নিশ্চিত। কারণ ওর স্ত্রী ভীষণ অসুস্থ। এমন অবস্থায় ওর পক্ষে যাওয়া কঠিন। তবে তার কোনো বিকল্প এখনো আমরা ভাবিনি। কারণ ওয়ানডের জন্য এখনো আরো সময় রয়েছে। প্রথম ওয়ানডে শুরু হবে আগামী ২২শে জুলাই। তখন সে যদি যেতে চায়, তাই তার জন্য আমরা অপেক্ষা করতে চাচ্ছি।’

মাশরাফির স্ত্রী সুস্থ হয়ে উঠছেন- এমনটাই দাবি কিছু সংবাদমাধ্যমের। তবে এখনও মাশরাফির সফরের ব্যাপারে নিশ্চয়তা দিচ্ছেন না আরেক নির্বাচক হাবিবুল বাশার, ‘আমরা কিন্তু এখনো নিশ্চিত নই যে ওয়ানডে সিরিজে মাশরাফি খেলতে পারবে কিনা। তবে তার জন্য আমরা অপেক্ষা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এটি নিশ্চিত ১৪ই জুলাই যেতে পারবে না। যদি ওর স্ত্রী সুস্থ হয়ে যায় তাহলে সে যেতে পারে।’

বৃহস্পতিবার শুরু হয়ে চলমান জ্যামাইকা টেস্ট শেষে বাংলাদেশ দল পাড়ি জমাবে গায়ানায়। সেখানে স্বাগতিকদের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২২ জুলাই। একই ভেন্যুতে ২৫ জুলাই মাঠে গড়াবে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ২৮ জুলাই, সেন্ট কিটসে। ওয়ানডে সিরিজ শেষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ অনুষ্ঠিত হবে, যার দুটি ম্যাচের ভেন্যু যুক্তরাষ্ট্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *